স্ত্রীর অধিকারসমূহ লেখাঃ হাবিবা রহমান


আলহামদুলিল্লাহ! বিবাহের চেয়ে সুন্দর সম্পর্ক আর কি’ই বা আছে। এই সম্পর্ক আরও বহুগুনে মধুর হয়ে যায় যদি স্বামী-স্ত্রী পরস্পর পরস্পরের হক আদায় করে। কেউ যেনো কারো অধিকারে কৃপনতা না করে। আসুন আজ দেখে নিই স্ত্রীর অধিকারসমূহঃ

১. হালাল মাল দ্বারা স্ত্রীর ভরন-পোষন দেয়া স্বামীর উপর ওয়াজিব। পোষণ বা পোশাকের মধ্যে প্রয়োজনের অতিরিক্ত প্রদান করা বা প্রতি ঈদে কিংবা বিবাহ-শাদী ইত্যাদি উপলক্ষে থাকা সত্ত্বেও নতুন পোশাক দেওয়া স্বামীর কর্তব্য নয়। দিলে তার অনুগ্রহ। স্বামীর সচ্ছলতা যেরুপ সেই মানের ভরনপোষণ দেয়া কর্তব্য। স্ত্রীর হাত খরচের জন্যও পৃথকভাবে কিছু দেয়া উচিৎ, যাতে সে ছোটখাটো প্রয়োজন পূরণ করতে পারে যেগুলো সব সময় ব্যক্ত করা সম্ভব নয়।

২. স্বামীর স্বচ্ছলতা থাকলে স্ত্রীর জন্য চাকর-নওকরের ব্যবস্থা করা স্বামীর উপর ওয়াজীব। অবশ্য স্বচ্ছলতা না থাকলে স্ত্রী কেই রান্না-বান্না সহ সব কাজ করতে হবে, এটা তখন তার দ্বায়িত্ব হয়ে পরে।

৩. স্ত্রীর বসবাসের জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী পৃথক ঘর বা অন্তত পৃথক রুম পাওয়া স্ত্রীর অধিকার। স্ত্রী যদি পৃথক থাকার কথা বলে এবং স্বামীর মাতা-পিতার সাথে একই ঘরে খুশি খুশি রাজী না থাকে, তাহলে তার ব্যবস্থা করা স্বামীর উপর ওয়াজিব। অন্তত পৃথক একটা কামরা তার থাকা জরুরি যেখানে সে তার ব্যক্তিগত জিনিসপত্র সুরক্ষিত রাখতে পারবে।

উল্লেখ্য, শ্বশুর-শ্বাশুরীর খেদমত করা স্ত্রীর উপর আইনগত ওয়াজীব নয়, করলে তার ছওয়াব আছে।

৪. স্ত্রীর সাথে সদ্ব্যবহার করা।

৫. স্ত্রীকে অহেতুক সন্দেহ না করা।

৬. দ্বীনি মাসায়েল শিক্ষা করে স্ত্রীকে তা শিক্ষা দেওয়া।

৭. প্রয়োজন অনুপাতে স্ত্রীর সাথে সংগম করা।

৮. স্ত্রীর অনুমতি ব্যতীত তার সাথে আযল করা স্বামীর উপর ওয়াজীব।

৯. বিনা কারনে তালাক না দেওয়া।

১০. মহর স্ত্রীর অধিকার।

Have any Question or Comment?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *